“ডিআরএম” বা “ডিজিটাল রেস্ট্রিকশনস ম্যানেজমেন্ট” প্রতিরোধ দিবস – ২০১৯

প্রযুক্তিভিত্তিক সেবা এবং পন্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলো কর্তৃক সাধারন ব্যবহারকারীদের নিকট তথ্য প্রদান না করা এবং তথ্য/প্রযুক্তি প্রাপ্তি/ব্যবহারের ক্ষেত্রে সরাসরি/বিকল্প পন্থায় বাধাসৃষ্টিকারী প্রযুক্তি/ব্যবস্থাগুলোকে আমজনতার সামনে উপস্থাপন করতেই এই দিনটি পালন করা হয়। প্রযুক্তির দুনিয়ায় প্রযুক্তি ব্যবহারকারীদের অধিকার খর্ব করে এমন সব প্রযুক্তিকে প্রতিহত করতে বিগত ২০১২ইং সাল থেকে প্রতি বছর ডিআরএম বা “ডিজিটাল রেস্ট্রিকশনস ম্যানেজমেন্ট” প্রতিরোধে মে মাসের প্রথম সপ্তাহের একটি দিন আন্তর্জাতিক দিবস হিসেবে সারা বিশ্বে পালিত হচ্ছে।

বিগত বছরগুলোয় আমরা এইচটিএমএল ৫ বা ওয়েব দুনিয়ার দখলদারীর উদ্দেশ্যে ইএমই বা এনক্রিপটেড মিডিয়া এক্সটেনশনস এবং ডিআরএম বা “ডিজিটাল রেস্ট্রিকশনস ম্যানেজমেন্ট” এর পরিকল্পনা ও বাস্তবায়ন রুখে দিতে, SOPA এবং PIPA প্রতিরোধে এই দিনটি পালন করেছিলাম। আমাদের সেই বৈশ্বিক/সামগ্রিক আন্দোলনের কার্যকারীতা সকল তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারকারী ইতোমধ্যেই দেখতে পাচ্ছেন এবং সেই প্রতিরোধের সুফলটাও ভোগ করছেন।

আমরা এফওএসএস বাংলাদেশ, কুষ্টিয়াস্থ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের সার্বিক সহযোগীতায়, পুরো বিশ্বের উন্মুক্ত মনা মানুষ ও প্রযুক্তিব্যবহারকারীদের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আসন্ন ১লা অক্টোবর ২০১৯ইং মঙ্গলবার, সকাল ১১টা থেকে দুপুর ২টা অবদি একটি জনসচেতনতামূলক আলোচনা সভা এবং মিনিট কুড়ি ব্যাপী একটি মানববন্ধন কর্মসূচী পালনের পরিকল্পনা করেছি।

আশা রাখি আপনাদেরকে সহ দেশের সকল মুক্তমনা মানুষ এবং প্রযুক্তি ব্যবহারকারীদেরকে এই দিনে আমাদের সাথেই পাবো। আমাদের সাথে সরাসরি এই মানববন্ধনে অংশ নিন এবং প্রযুক্তির দুনিয়ায় এই দুষ্ট ডিআরএম প্রযুক্তির প্রতিরোধে নিজের দৃঢ় অবস্থান আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে জানিয়ে দিন। ডিআরএম বা “ডিজিটাল রেস্ট্রিকশনস ম্যানেজমেন্ট” বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানতে দেখুন — http://www.defectivebydesign.org/what_is_drm

লিনাক্স মিন্ট ১৯ “টিনা”র প্রকাশনা উদযাপন

লিনাক্স মিন্ট ১৯ “টিনা”র প্রকাশনা উদযাপন

উবুন্টু’র এলটিএস এবং ডেবিয়ানের স্টেবল ডিস্ট্রোসমূহের উপরে ভিত্তি করে প্রস্তুতকৃত এই জিএনইউ/লিনাক্স ডিস্ট্রো লিনাক্স মিন্ট বিগত ২০১৩ইং সাল থেকে ডেস্কটপ ও ল্যাপটপে উবুন্টু’র চাইতেও বেশী জনপ্রিয়তা পেয়ে সারা বিশ্বের লিনাক্স ডিস্ট্রো ব্যবহারকারীদের পছন্দের তালিকায় এক নম্বরে রয়েছে। চলতি ২০১৯ইং সালে লিনাক্স মিন্টের সাম্প্রতিকতম প্রকাশনাটি হয়েছে বিগত ২ আগষ্ট দিবাগত রাত্রে আর এর সাংকেতিক নাম রাখা হয়েছে-”টিনা”। এবারের সংস্করণটিতে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আনা হয়েছে। এটিকে আরো বেশী ব্যবহারকারী বান্ধব করা হয়েছে, সংযুক্ত সফটওয়্যারগুলোর হালনাগাদকৃত সংস্করণ যুক্ত করা হয়েছে, ফাইল ম্যানেজারকে আরো বেশী দ্রুতগতির ও আরো বেশী ফিচারসমৃদ্ধ করা হয়েছে। ওয়ালপেপারসমূহে আনা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন ছোঁয়া। সব মিলিয়ে লিনাক্সমিন্টের এই সংস্করনটি নবীন কম্পিউটার ব্যবহাকারীদের জন্য “ছোট্ট কিন্তু পরিপূর্ণ এক প্যাকেজ”।

Read More

ডেবিয়ান ১০ “বাস্টার” এর প্রকাশনা উদযাপন

ডেবিয়ান ১০ “বাস্টার” এর প্রকাশনা উদযাপন

বর্তমান প্রযুক্তি বিশ্বের সবচাইতে জনপ্রিয় সার্ভার ওএস এবং স্টেবল-নিরাপদ-ঝামেলামুক্ত ডিস্ট্রো “ডেবিয়ান” এর নতুন সংস্করন প্রকাশিত হয় প্রতি দুই বছর বিরতিতে। উবুন্টু, লিনাক্স মিন্ট, কালি লিনাক্স সহ বেশ কিছু জনপ্রিয় ডিস্ট্রো এই ডেবিয়ান ডিস্ট্রোর উপর ভিত্তি করেই প্রস্তুতকৃত। এই জিএনইউ/লিনাক্স ডিস্ট্রোটি বর্তমানে সার্ভার জগতে সর্বোচ্চ জনপ্রিয়তা পেয়ে সারা বিশ্বের জিএনইউ/লিনাক্স ডিস্ট্রো ব্যবহারকারীদের পছন্দের তালিকার শীর্ষে রয়েছে। চলতি ২০১৯ইং সালে ডেবিয়ানের দশম প্রকাশনাটি হয়েছে জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে আর সাংকেতিক নাম রাখা হয়েছে-”বাস্টার”। লক্ষ্যনীয় যে, “ডেবিয়ান” কোন ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান কর্তৃক তৈরী করা হয় না, বরংচ এটি তৈরী হয়ে থাকে সারা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে থাকা বিভিন্ন অবদানকারীদের সম্পূর্নই নিজস্ব প্রচেষ্টা আর স্বেচ্ছাশ্রমে।

Read More

“সফটওয়্যার মুক্তি দিবস – ২০১৯” — বাংলাদেশ আয়োজন

“সফটওয়্যার মুক্তি দিবস – ২০১৯” — বাংলাদেশ আয়োজন

sfd-2019

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। ১৯৮৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসের কোন একদিনে রিচার্ড স্টলম্যান নামের সফটওয়্যারের যাদুকর এক বদ্ধ উন্মাদ নিজের মোটা মাইনের চাকুরী ছেড়ে দিয়ে শুরু করেছিলেন মানবতার জন্য সফটওয়্যার উন্মুক্ত করার কাজ – “প্রজেক্ট গ্নু (GNU)”। সেই ব্যক্তিগত পাগলামো মার্কা উদ্যোগটাই আজ পৌঁছে গেছে সামগ্রিক ”সফটওয়্যার মুক্তি”র আন্দোলনে। প্রতিষ্ঠা পেয়েছে ”মুক্ত সফটওয়্যার ফাউন্ডেশন” (Free Software Foundation বা FSF)। বিশ্বের বাঘা বাঘা সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যার প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান যোগ দিয়েছে এই সংগঠনের সহযোগী হিসেবে। উদাহরন স্বরূপ বলা যায় – ইএফএফ, ডিএফএফ, ক্যানোনিক্যাল, আইবিএম, গুগল, লিনাক্স ফাউন্ডেশনের নাম। ২০০৪ সাল থেকে এই আন্দোলনের শুরুর দিনটি উদযাপন করা হচ্ছে সেপ্টেম্বর মাসের তৃতীয় শনিবারে।

Read More

“লিনাক্স” কার্নেলের ২৮তম বর্ষপূর্তি উদযাপন

১৯৯১ সালের ২৫শে আগস্ট, হেলসিংকি বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য প্রযুক্তির এক ছাত্র লিনুস টরভ্যাল্ডস উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক কার্নেল ”লিনাক্স” প্রকাশ করেন। সেই থেকে আজ অবধি জিএনইউ/লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন অপারেটিং সিস্টেম সারা বিশ্বের প্রযুক্তি জগৎটা দাপটের সাথেই চষে বেড়াচ্ছে। কিন্তু এই অপারেটিং সিস্টেমগুলো যে এখন আর শুধুই সার্ভারের জগতেই সীমাবদ্ধ নয়, ডেস্কটপ-ট্যাবলেট পিসি-মুঠোফোন-ডিজিটাল ক্যামেরা সহ আরো নানান দৈনন্দিন ব্যবহার্য প্রযুক্তি যন্ত্রেও এর বিচরন ইদানিংকালে ঈর্ষণীয় কাতারে চলে এসেছে — এই বিষয়টা প্রযুক্তিপ্রেমী সব বাংলাদেশী কে জানাতে, বোঝাতে এবং প্রযুক্তির দুনিয়ায় লিনাক্স ভিত্তিক অপারেটিং সিস্টেমের বীরত্বপূর্ণ সাফল্য গাঁথার কিছু ইতিহাস সবার সামনে তুলে ধরার লক্ষ্যে এফওএসএস বাংলাদেশ (FOSS Bangladesh) ২৪শে আগস্ট ২০১৯ইং, শনিবার ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস (ইউআইটিএস) এর কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের সাথে যৌথভাবে “লিনাক্স ডে – ২০১৯” – বাংলাদেশ, শিরোনামে “লিনাক্স” কার্নেলের ২৮-তম বর্ষপূর্তি উদযাপন করে।

Read More

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৯” — রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

 

প্রযুক্তি জগতে বহুল আলোচিত বিষয়গুলোর মধ্যে একটি হল, “ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা”। অথচ সাধারণ ব্যবহারকারীদের মাঝে এই বিষয়ে কোনরূপ ধারণাই নেই।তারা তাদের ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষার জন্য ন্যূনতম মাথা খাটায় না।সাধারণ ব্যবহারকারীর সেই ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষার সাথে সাথে প্রযুক্তি জগতে তাদের চুড়ান্ত স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে রয়েছে Free Software।

কি এই ফ্রি সফটওয়্যার? মাগনা পাওয়া সফটওয়্যার নাকি অন্য কিছু?

Read More

উবুন্টু ১৯.০৪ “ডিস্কো ডিংগো” এর প্রকাশনা উদযাপন

Banner of Ubuntu 19.04 (Disco Dingo) Release Party

Banner of Ubuntu 19.04 (Disco Dingo) Release Party

এই প্রথম একটি ডিস্ট্রোর প্রকাশনা উদযাপন করা হলো ইফতার আয়োজনের মাধ্যমে। উবুন্টুর নতুন সংস্করন ১৯.০৪(ডিস্কো ডিংগো) এর প্রকাশনা উদযাপন আয়োজনটি আয়োজিত হলো গত ১৮ মে ২০১৯ইং, রোজ শনিবার।

Read More

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৯” — ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি

প্রযুক্তি জগতে বহুল আলোচিত বিষয়গুলোর মধ্যে একটি হল, “ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা”। অথচ সাধারণ ব্যবহারকারীদের মাঝে এই বিষয়ে কোনরূপ ধারণাই নেই।তারা তাদের ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষার জন্য ন্যূনতম মাথা খাটায় না।সাধারণ ব্যবহারকারীর সেই ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষার সাথে সাথে প্রযুক্তি জগতে তাদের চুড়ান্ত স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে রয়েছে Free Software।

কি এই ফ্রি সফটওয়্যার? মাগনা পাওয়া সফটওয়্যার নাকি অন্য কিছু?

Read More

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৬” – নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটি”

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। “সফটওয়্যার চোর” অপবাদ থেকে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, লিনাক্স ও উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক সফটওয়্যারকে ছড়িয়ে দেবার প্রত্যয়ে মুক্ত প্রযুক্তি ভিত্তিক সফটওয়্যার, লিনাক্স এবং বিভিন্ন সেবাসমূহ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে এফওএসএস বাংলাদেশ (ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ)।

উন্মুক্ত প্রযুক্তি ও মুক্ত সফটওয়্যার বিষয়ে এফওএসএস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”। এফওএসএস বাংলাদেশ এবং নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটি এর ইলেক্ট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক্স, কম্পিউটার ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সম্মিলিত উদ্যোগে ২৬শে জুলাই ২০১৬ইং মঙ্গলবার, ঢাকার বসুন্ধরায় অবস্থিত নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটি এর এনএসি-২১১ কক্ষে “পেঙ্গুইন মেলা” অনুষ্ঠিত হয়। আয়োজন সহযোগীতায় রয়েছে আইইইই ডব্লিউআইই অ্যাফফিনিটি গ্রুপ, এনএসইউ শিক্ষার্থী শাখা।

এই আয়োজনে ছিল —
# সফটওয়্যার ও সফটওয়্যার পাইরেসি বিষয়ক আলোচনা
# সফটওয়্যার পাইরেসি থেকে মুক্ত হবার উপায় নিয়ে বিশদ আলোচনা
# মুক্ত সফটওয়্যার, ওপেনসোর্স ও জিএনইউ-লিনাক্স বিষয়ে আলোচনা
# অংশগ্রহনকারী দর্শকদের সাথে মতামত বিনিময় ও সরাসরি আলোচনা।
# আয়োজনের শেষাংশে জিএনইউ/লিনাক্স ডিস্ট্রো ইন্সটলেশন এবং ব্যবহার সহযোগীতার ব্যবস্থা। যেখানে জিএনইউ-লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভে সংগ্রহ ও ইন্সটল করে নেয়া যাবে।

লিনাক্স মিন্ট ১৮ “সারাহ”র প্রকাশনা উদযাপন

প্রতি বছরের মে এবং নভেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে “লিনাক্স মিন্ট” এর সংস্করনগুলো প্রকাশিত হয়ে থাকে। উবুন্টু’র এলটিএস এবং ডেবিয়ানের স্টেবল ডিস্ট্রোসমূহের উপরে ভিত্তি করে প্রস্তুতকৃত এই জিএনইউ/লিনাক্স ডিস্ট্রোটি বিগত ২০১৩ইং সাল থেকেই উবুন্টু’র চাইতেও বেশী জনপ্রিয়তা পেয়ে সারা বিশ্বের লিনাক্স ডিস্ট্রো ব্যবহারকারীদের পছন্দের তালিকায় এক নম্বরে রয়েছে। চলতি ২০১৬ইং সালে লিনাক্স মিন্টের সাম্প্রতিকতম প্রকাশনাটি হয়েছে বিগত ৩০শে জুন দিবাগত রাত্রে আর এর সাংকেতিক নাম রাখা হয়েছে-”সারাহ”। এবারের সংস্করণটিতে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আনা হয়েছে। এটিকে আরো বেশী ব্যবহারকারী বান্ধব করা হয়েছে, সংযুক্ত সফটওয়্যারগুলোর হালনাগাদকৃত সংস্করণ যুক্ত করা হয়েছে, ফাইল ম্যানেজারকে আরো বেশী দ্রুতগতির ও আরো বেশী ফিচারসমৃদ্ধ করা হয়েছে। ওয়ালপেপারসমূহে আনা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন ছোঁয়া। সব মিলিয়ে লিনাক্সমিন্টের এই সংস্করনটি নবীন কম্পিউটার ব্যবহাকারীদের জন্য “ছোট্ট কিন্তু পরিপূর্ণ এক প্যাকেজ” 🙂

Read More