“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৫” — ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। “সফটওয়্যার চোর” অপবাদ থেকে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, লিনাক্স ও উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক সফটওয়্যারকে ছড়িয়ে দেবার প্রত্যয়ে মুক্ত প্রযুক্তি ভিত্তিক সফটওয়্যার, লিনাক্স এবং বিভিন্ন সেবাসমূহ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে এফওএসএস বাংলাদেশ (ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ)।

উন্মুক্ত প্রযুক্তি ও মুক্ত সফটওয়্যার বিষয়ে এফওএসএস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”। আসন্ন “পেঙ্গুইন মেলা” টি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৪ই মার্চ ২০১৫ইং, শনিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা অবদি ঢাকা বিভাগে, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি’র ডঃ এম আই পাটোয়ারী মিলনায়তনে।

এই আয়োজনে থাকছে —
# সফটওয়্যার ও সফটওয়্যার পাইরেসি বিষয়ক আলোচনা
# সফটওয়্যার পাইরেসি থেকে মুক্ত হবার উপায় নিয়ে বিশদ আলোচনা
# মুক্ত সফটওয়্যার, ওপেনসোর্স ও জিএনইউ-লিনাক্স বিষয়ে আলোচনা
# অংশগ্রহনকারী দর্শকদের সাথে মতামত বিনিময় ও সরাসরি আলোচনা।
# আয়োজনের শেষাংশে জিএনউউ/লিনাক্স ডিস্ট্রো ইন্সটলেশন এবং ব্যবহার সহযোগীতার ব্যবস্থা। যেখানে জিএনইউ-লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভে সংগ্রহ ও ইন্সটল করে নেয়া যাবে।

আয়োজনে সার্বিক সহযোগীতা দিচ্ছে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি’র ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং(ইইটিই) বিভাগ। আয়োজনে আপনার অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার তথ্যটি আমাদেরকে এই লিংক থেকে প্রাপ্ত ফর্মে দিন, আমাদের আয়োজন পরিকল্পনায় সহযোগীতা করুন।

আয়োজনের ছবির সংকলন।

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৪” — বরিশাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। “সফটওয়্যার চোর” অপবাদ থেকে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, লিনাক্স ও উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক সফটওয়্যারকে ছড়িয়ে দেবার প্রত্যয়ে মুক্ত প্রযুক্তি ভিত্তিক সফটওয়্যার, লিনাক্স এবং বিভিন্ন সেবাসমূহ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে এফওএসএস বাংলাদেশ (ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ)।

উন্মুক্ত প্রযুক্তি ও মুক্ত সফটওয়্যার বিষয়ে এফওএসএস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”। আসন্ন “পেঙ্গুইন মেলা” টি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৭ই সেপ্টেম্বর ২০১৪ইং, রবিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা ৩০মিনিট অবদি বরিশাল বিভাগে, বরিশাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের মিলনায়তনে।

উক্ত অনুষ্ঠানে থাকছে —
# সফটওয়্যার ও সফটওয়্যার পাইরেসি বিষয়ক আলোচনা
# সফটওয়্যার পাইরেসি থেকে মুক্ত হবার উপায় নিয়ে বিশদ আলোচনা
# মুক্ত সফটওয়্যার, ওপেনসোর্স ও জিএনইউ-লিনাক্স ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা
# পাশাপাশি আরো রয়েছে অংশগ্রহনকারী দর্শকদের সাথে মতামত বিনিময় ও সরাসরি আলোচনা।
# আয়োজনের শেষাংশে থাকছে জিএনউউ/লিনাক্স ডিস্ট্রো ইন্সটলেশন এবং ব্যবহার সহযোগীতার ব্যবস্থা, যেখানে জিএনইউ-লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভে সংগ্রহ ও ইন্সটল করিয়ে নেয়া যাবে।

আয়োজনে যৌথভাবে সহযোগীতা দিচ্ছে বরিশাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট (বিপিআই) ও বরিশাল সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি (বিএসআইটি) কর্তৃপক্ষ।

আয়োজন পরবর্তী সংবাদ প্রতিবেদন —
উন্মুক্ত প্রযুক্তি ও মুক্ত সফটওয়্যার বিষয়ে এফওএসএস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা” অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো আজ ৭ই সেপ্টেম্বর ২০১৪ইং, রবিবার বরিশাল বিভাগে, বরিশাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের মিলনায়তনে। উক্ত অনুষ্ঠানে সফটওয়্যার পাইরেসি থেকে মুক্ত হবার উপায়, মুক্ত সফটওয়্যার, ওপেনসোর্স ও জিএনইউ-লিনাক্স ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি আরো ছিলো অংশগ্রহনকারী দর্শকদের সাথে মতামত বিনিময় ও সরাসরি আলোচনা। আয়োজনে অংশ নেন বরিশাল পলিটেকনিক এর অধ্যক্ষ প্রকৌশলী ড. নুরুল ইসলাম, কম্পিউটার বিভাগীয় প্রধান মোঃ শাখাওয়াত হোসেন, অন্যান্য বিভাগীয় প্রধান ও শিক্ষকগন এবং বিএসআইটি’র প্রশিক্ষক এস এম হাবিবুর রহমান। আয়োজনে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন এফওএসএস বাংলাদেশ এর মহাসচিব সাজেদুর রহিম জোয়ারদার রিং। আয়োজনে আরো বক্তব্য রাখেন এফওএসএস বাংলাদেশ এর স্বেচ্ছাসেবক সফিকুর রহমান পল্লব এবং সরাসরি মত বিনিময়কালে অংশ নেন উপস্থিত শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।

প্রায় দুইশতাধিক ছাত্র-ছাত্রীর উপস্থিতিতে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা অবদি চলা এ আয়োজনের শেষাংশে ছিলো জিএনউউ/লিনাক্স ডিস্ট্রো ইন্সটলেশন এবং ব্যবহার সহযোগীতার ব্যবস্থা। এছাড়াও ছিলো জিএনইউ-লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভে সংগ্রহ ও ইন্সটল করিয়ে নেয়ার সুযোগ। আয়োজনে যৌথভাবে সহযোগীতা দিয়েছে বরিশাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট (বিপিআই) ও বরিশাল সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি (বিএসআইটি) কর্তৃপক্ষ।

আয়োজনের ছবির সংকলন।

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৪” — ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। “সফটওয়্যার চোর” অপবাদ থেকে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, জিএনইউ/লিনাক্স ও উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক সফটওয়্যার সেবাগুলোকে সকল প্রযুক্তিপ্রেমীর কাছে পৌঁছে দেবার প্রত্যয়ে মুক্ত প্রযুক্তি ভিত্তিক সফটওয়্যার, লিনাক্স এবং বিভিন্ন সেবাসমূহ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে এফওএসএস বাংলাদেশ।

উন্মুক্ত প্রযুক্তি ও মুক্ত সফটওয়্যার বিষয়ে এফওএসএস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”। আসন্ন “পেঙ্গুইন মেলা” টি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৪ই জুলাই ২০১৪ইং, রোজ সোমবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা অবদি, ঢাকার মহাখালীতে অবস্থিত ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় মিলনায়তনে।

# আয়োজনে থাকছে মুক্ত সফটওয়্যার, উন্মুক্ত প্রযুক্তি, জিএনইউ/লিনাক্স বিষয়ক আলোচনা
# বিভিন্ন মুক্ত সফটওয়্যার এবং জিএনইউ/লিনাক্স বিষয়ক তথ্যচিত্র প্রদর্শনী।
# আরো থাকছে ”ইনস্টলেশন ও ব্যবহারিক সহযোগীতা সেবা বুথ”। যেখানে আমাদের স্বেচ্ছাসেবকগণ আয়োজনে অংশগ্রহনকারীদের পছন্দ অনুসারে তাঁদের ল্যাপটপ কিংবা নেটবুকে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রো ইন্সটল এবং ইন্সটল পরবর্তী নিত্য প্রয়োজনীয় সেটিংসগুলো করে দেবেন। (অনলাইনে ফর্মপূরনকারীরা অগ্রাধিকার পাবেন।)
# এছাড়াও আয়োজনস্থলে থাকবে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন জনপ্রিয় ডিস্ট্রোগুলো পেনড্রাইভে/পছন্দের মিডিয়াতে বিতরনের ব্যবস্থা।

আয়োজনে সার্বিক সহযোগীতা দিচ্ছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় কম্পিউটার ক্লাব।

আয়োজনে আপনার অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে এই লিংক থেকে প্রাপ্ত ফর্মটি আপনার তথ্য দিয়ে পূরন করে দিন।

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৪” — ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। “সফটওয়্যার চোর” অপবাদ থেকে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, জিএনইউ/লিনাক্স ও উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক সফটওয়্যার সেবাগুলোকে সকল প্রযুক্তিপ্রেমীর কাছে পৌঁছে দেবার প্রত্যয়ে মুক্ত প্রযুক্তি ভিত্তিক সফটওয়্যার, লিনাক্স এবং বিভিন্ন সেবাসমূহ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে এফওএসএস বাংলাদেশ।

উন্মুক্ত প্রযুক্তি ও মুক্ত সফটওয়্যার বিষয়ে এফওএসএস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”। আসন্ন “পেঙ্গুইন মেলা” টি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১২ই জুন ২০১৪ইং, রোজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টা থেকে বিকাল ৫টা ৩০মিনিট অবদি, ঢাকার গুলশান -২ এ প্রগতি সরনীর জামালপুর টুইন টাওয়ারে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস এর ৬ষ্ঠ তলায়, হলরুমে।

# আয়োজনে থাকছে মুক্ত সফটওয়্যার, উন্মুক্ত প্রযুক্তি, জিএনইউ/লিনাক্স বিষয়ক আলোচনা
# বিভিন্ন মুক্ত সফটওয়্যার এবং লিনাক্স নিয়ে তথ্যভিত্তিক তথ্য চিত্র প্রদর্শনী।
# আরো থাকছে ”ইনস্টলেশন ও ব্যবহারিক সহযোগীতা সেবা বুথ”। যেখানে আমাদের স্বেচ্ছাসেবকগণ আয়োজনে অংশগ্রহনকারীদের পছন্দ অনুসারে তাঁদের ল্যাপটপ কিংবা নেটবুকে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রো ইন্সটল এবং ইন্সটল পরবর্তী নিত্য প্রয়োজনীয় সেটিংসগুলো করে দেবেন। (অনলাইনে ফর্মপূরনকারীরা অগ্রাধিকার পাবেন।)
# এছাড়াও আয়োজনস্থলে থাকবে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন জনপ্রিয় ডিস্ট্রোগুলো পেনড্রাইভে/পছন্দের মিডিয়াতে বিতরনের ব্যবস্থা।

আয়োজনে যৌথভাবে সার্বিক সহযোগীতায় ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস এর কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগ এবং তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ দ্বয়।


আয়োজন পরবর্তী প্রতিবেদন:

সাম্প্রতিকতম “পেঙ্গুইন মেলা” টি অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো বিগত ১২ই জুন ২০১৪ইং, রোজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টা থেকে বিকাল ৫টা ৩০মিনিট অবদি, ঢাকার বারিধারায়, প্রগতি স্মরনীর জামালপুর টুইনটাওয়ারে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস এর তৃতীয় তলার সম্মেলন কক্ষে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল এবং তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের যৌথ আয়োজন “জিরো ওয়ান ফেস্ট” এ, কতৃপক্ষের আমন্ত্রনে এই আয়োজনে অংশ নিয়ে দুইদিন ব্যাপী আয়োজনের প্রথমদিনে এফওএসএস বাংলাদেশ “পেঙ্গুইন মেলা” এবং দ্বিতীয় দিনে সারাদিন ব্যাপী, বিনামূল্যে সকলের জন্য “জিএনইউ/লিনাক্স ইন্সটল ও ব্যবহারিক সহযোগীতা সেবা”র আয়োজন করেছিলো।

সফটওয়্যার পাইরেসি থেকে মুক্ত হবার উপায়, মুক্ত সফটওয়্যার, ওপেনসোর্স ও জিএনইউ-লিনাক্স ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি আরো ছিলো অংশগ্রহনকারী দর্শকদের সাথে মতামত বিনিময় ও সরাসরি আলোচনা ও প্রশ্নোত্তর পর্ব। আয়োজনে বক্তব্য উপস্থাপন করেন এফওএসএস বাংলাদেশের মহাসচিব সাজেদুর রহিম জোয়ারদার, সাধারন পরিষদ সদস্য এবং মিডিয়া ব্যক্তিত্ব কায়েস খান এবং আফতাবুল ইসলাম, স্বেচ্ছাসেবী সদস্য জনাব সগীর হোসাইন খান এবং সাইফুল আলম।

পেঙ্গুইন মেলার শেষাংশে এবং দ্বিতীয় দিনের পুরোটা জুড়েই আগ্রহী সকলের জন্যে ছিলো জিএনউউ/লিনাক্স ডিস্ট্রো ইন্সটলেশন এবং ব্যবহার সহযোগীতার ব্যবস্থা। এছাড়াও ছিলো জিএনইউ-লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভে সংগ্রহ করার ব্যবস্থা।

আয়োজনের ছবির সংকলন।

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৪” — ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। “সফটওয়্যার চোর” অপবাদ থেকে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, জিএনইউ/লিনাক্স ও উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক সফটওয়্যার সেবাগুলোকে সকল প্রযুক্তিপ্রেমীর কাছে পৌঁছে দেবার প্রত্যয়ে মুক্ত প্রযুক্তি ভিত্তিক সফটওয়্যার, লিনাক্স এবং বিভিন্ন সেবাসমূহ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে এফওএসএস বাংলাদেশ।

উন্মুক্ত প্রযুক্তি ও মুক্ত সফটওয়্যার বিষয়ে এফওএসএস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”। আসন্ন “পেঙ্গুইন মেলা” টি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১২ই এপ্রিল ২০১৪ইং, রোজ শনিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা ৩০মিনিট অবদি, ঢাকার ধানমন্ডির শুক্রাবাদে অবস্থিত ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি’র মূল ভবনের তৃতীয় তলায়, ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড কমিউনিকেশন প্রকৌশল বিভাগের সম্মেলন কক্ষে।

# আয়োজনে থাকছে মুক্ত সফটওয়্যার, উন্মুক্ত প্রযুক্তি, জিএনইউ/লিনাক্স বিষয়ক আলোচনা
# ”সফটওয়্যার মুক্তি আন্দোলন” ও বিভিন্ন মুক্ত সফটওয়্যার এবং লিনাক্স নিয়ে তথ্যভিত্তিক তথ্য চিত্র প্রদর্শনী।
# আরো থাকছে ”ইনস্টলেশন ও ব্যবহারিক সহযোগীতা সেবা বুথ”। যেখানে আমাদের স্বেচ্ছাসেবকগণ আয়োজনে অংশগ্রহনকারীদের পছন্দ অনুসারে তাঁদের ল্যাপটপ কিংবা নেটবুকে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রো ইন্সটল এবং ইন্সটল পরবর্তী নিত্য প্রয়োজনীয় সেটিংসগুলো করে দেবেন। (অনলাইনে ফর্মপূরনকারীরা অগ্রাধিকার পাবেন।)
# এছাড়াও আয়োজনস্থলে থাকবে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন জনপ্রিয় ডিস্ট্রোগুলো পেনড্রাইভে, পছন্দের মিডিয়াতে এবং সিডি/ডিভিডিতে বিতরনের ব্যবস্থা।

আয়োজনে সহযোগীতা করছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সফটওয়্যার প্রকৌশল বিভাগ। আয়োজনে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে এই লিংক থেকে প্রাপ্ত ফর্মে আপনার তথ্য দিন।

আয়োজনের ছবির সংকলন।

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৩” — ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। “সফটওয়্যার চোর” অপবাদ থেকে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, জিএনইউ/লিনাক্স ও উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক সফটওয়্যার সেবাগুলোকে সকল প্রযুক্তিপ্রেমীর কাছে পৌঁছে দেবার প্রত্যয়ে মুক্ত প্রযুক্তি ভিত্তিক সফটওয়্যার, লিনাক্স এবং বিভিন্ন সেবাসমূহ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে এফওএসএস বাংলাদেশ।

উন্মুক্ত প্রযুক্তি ও মুক্ত সফটওয়্যার বিষয়ে এফওএসএস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”। আসন্ন “পেঙ্গুইন মেলা” টি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১০ই অক্টোবর ২০১৩ইং, রোজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যে ৬টা অবদি, ধানমন্ডিস্থ ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি’র চতুর্থ তলায়।

# আয়োজনে থাকছে মুক্ত সফটওয়্যার, উন্মুক্ত প্রযুক্তি, জিএনইউ/লিনাক্স বিষয়ক আলোচনা
# ”সফটওয়্যার মুক্তি আন্দোলন” ও বিভিন্ন মুক্ত সফটওয়্যার এবং লিনাক্স নিয়ে তথ্যভিত্তিক তথ্য চিত্র প্রদর্শনী।
# আরো থাকছে ”ইনস্টলেশন ও ব্যবহারিক সহযোগীতা সেবা বুথ”। যেখানে আমাদের স্বেচ্ছাসেবকগণ আয়োজনে অংশগ্রহনকারীদের পছন্দ অনুসারে তাঁদের ল্যাপটপ কিংবা নেটবুকে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রো ইন্সটল এবং ইন্সটল পরবর্তী নিত্য প্রয়োজনীয় সেটিংসগুলো করে দেবেন। (অনলাইনে ফর্মপূরনকারীরা অগ্রাধিকার পাবেন।)
# এছাড়াও আয়োজনস্থলে থাকবে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন জনপ্রিয় ডিস্ট্রোগুলো পেনড্রাইভে, পছন্দের মিডিয়াতে এবং সিডি/ডিভিডিতে বিতরনের ব্যবস্থা।

আয়োজনে সহযোগীতা করছে ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি’র কম্পিউটার প্রকৌশল বিভাগ।

আয়োজনের কিছু ছবির সংকলন।

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৩” — চট্টগ্রাম বিভাগ

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। “সফটওয়্যার চোর” অপবাদ থেকে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, জিএনইউ/লিনাক্স ও উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক সফটওয়্যার সেবাগুলোকে সকল প্রযুক্তিপ্রেমীর কাছে পৌঁছে দেবার প্রত্যয়ে মুক্ত প্রযুক্তি ভিত্তিক সফটওয়্যার, লিনাক্স এবং বিভিন্ন সেবাসমূহ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে এফওএসএস বাংলাদেশ।

উন্মুক্ত প্রযুক্তি ও মুক্ত সফটওয়্যার বিষয়ে এফওএসএস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”। বিগত ১০ই অক্টোবর ২০১৩ইং, রোজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যে ৬টা অবদি, ধানমন্ডিস্থ ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি’র চতুর্থ তলায় অনুষ্ঠিত হয় আমাদের “পেঙ্গুইন মেলা”।

আয়োজনে ছিল:

# মুক্ত সফটওয়্যার, উন্মুক্ত প্রযুক্তি, জিএনইউ/লিনাক্স বিষয়ক আলোচনা
# ”সফটওয়্যার মুক্তি আন্দোলন” ও বিভিন্ন মুক্ত সফটওয়্যার এবং লিনাক্স নিয়ে তথ্যভিত্তিক তথ্য চিত্র প্রদর্শনী।
# আরো থাকছে ”ইনস্টলেশন ও ব্যবহারিক সহযোগীতা সেবা বুথ”। যেখানে আমাদের স্বেচ্ছাসেবকগণ আয়োজনে অংশগ্রহনকারীদের পছন্দ অনুসারে তাঁদের ল্যাপটপ কিংবা নেটবুকে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রো ইন্সটল এবং ইন্সটল পরবর্তী নিত্য প্রয়োজনীয় সেটিংসগুলো করে দেবেন। (অনলাইনে ফর্মপূরনকারীরা অগ্রাধিকার পাবেন।)
# এছাড়াও আয়োজনস্থলে থাকবে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন জনপ্রিয় ডিস্ট্রোগুলো পেনড্রাইভে, পছন্দের মিডিয়াতে এবং সিডি/ডিভিডিতে বিতরনের ব্যবস্থা।

আয়োজনে সহযোগীতা করেছে ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি’র কম্পিউটার প্রকৌশল বিভাগ।

আয়োজনের কিছু ছবির সংকলন।

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৩” — ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। “সফটওয়্যার চোর” অপবাদ থেকে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, জিএনইউ/লিনাক্স ও উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক সফটওয়্যার সেবাগুলোকে সকল প্রযুক্তিপ্রেমীর কাছে পৌঁছে দেবার প্রত্যয়ে মুক্ত প্রযুক্তি ভিত্তিক সফটওয়্যার, লিনাক্স এবং বিভিন্ন সেবাসমূহ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে এফওএসএস বাংলাদেশ।

উন্মুক্ত প্রযুক্তি ও মুক্ত সফটওয়্যার বিষয়ে এফওএসএস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”।   বিগত ৯ই অক্টোবর ২০১৩ইং, রোজ বুধবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর ২টা ৩০মিনিট অবদি, ঢাকার ধানমন্ডির ১০২/১নং শুক্রাবাদে অবস্থিত ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি’র প্রশাসনিক ভবনের লাউঞ্জে এই “পেঙ্গুইন মেলা” অনুষ্ঠিত হয়।

আয়োজনে ছিল:

#  মুক্ত সফটওয়্যার, উন্মুক্ত প্রযুক্তি, জিএনইউ/লিনাক্স বিষয়ক আলোচনা
# ”সফটওয়্যার মুক্তি আন্দোলন” ও বিভিন্ন মুক্ত সফটওয়্যার এবং লিনাক্স নিয়ে তথ্যভিত্তিক তথ্য চিত্র প্রদর্শনী।
# আরো থাকছে ”ইনস্টলেশন ও ব্যবহারিক সহযোগীতা সেবা বুথ”। যেখানে আমাদের স্বেচ্ছাসেবকগণ আয়োজনে অংশগ্রহনকারীদের পছন্দ অনুসারে তাঁদের ল্যাপটপ কিংবা নেটবুকে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রো ইন্সটল এবং ইন্সটল পরবর্তী নিত্য প্রয়োজনীয় সেটিংসগুলো করে দেবেন। (অনলাইনে ফর্মপূরনকারীরা অগ্রাধিকার পাবেন।)
# এছাড়াও আয়োজনস্থলে থাকবে লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন জনপ্রিয় ডিস্ট্রোগুলো পেনড্রাইভে, পছন্দের মিডিয়াতে এবং সিডি/ডিভিডিতে বিতরনের ব্যবস্থা।

আয়োজনে সহযোগীতা করেছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সফটওয়্যার প্রকৌশল বিভাগ।

আয়োজনের ছবির সংকলন।