“উবুন্টু ১৯.০৪ (ডিস্কো ডিংগো)” প্রকাশনা উদযাপন

উবুন্টু ১৯.০৪ ডিস্কো ডিস্কো ডিংগো

বিগত ১৮ এপ্রিল ২০১৯ইং উবুন্টুর সাম্প্রতিকতম সংস্করণ উবুন্টু ১৯.০৪ (ডিস্কো ডিংগো) সাংকেতিক নামে প্রকাশিত হয়েছে। উবুন্টু’র প্রতিটি সংস্করণ প্রকাশিত হবার পরপরই বিশ্বের প্রায় প্রতিটি উবুন্টু লোকো (লোকো =লোকাল কমিউনিটি = দেশীয়/স্থানীয় ব্যবহারকারী, মানোন্নয়কারী, অনুবাদক) উবুন্টুর এই প্রকাশনাকে বিভিন্ন রকমের আনন্দ আয়োজনের মাধ্যমে উদযাপন করে থাকে। যার নামকরণ করা হয় — “উবুন্টু রিলিজ পার্টি” শিরোনামে।

এবারের এই নতুন সংস্করণটি প্রকাশিত হবার পর আমরাও বিশ্ববাসীর সাথে এই আনন্দ আয়োজন উদযাপনের আকাঙ্খা ব্যক্ত করছি। ইনশাল্লাহ আগামী ৪ঠা মে ২০১৯ইং, শনিবার বিকাল ৪টা থেকে ৬টা অবদি আমরা, বাংলাদেশের উবুন্টু প্রেমীরাও, ” উবুন্টু ১৯.০৪ (ডিস্কো ডিংগো)” এর প্রকাশনা উদযাপন করবো।

আয়োজনের তথ্য (আলোচনা চলছে):
স্থান: আপনিও প্রস্তাবনা দিতে পারেন এখানে
তারিখ: ৪ঠা মে ২০১৯ইং, শনিবার।
সময়: বিকাল ৪টা থেকে ৬টা।

আয়োজন সূচীঃ
# উবুন্টু কী, কেন?
# উবুন্টু ব্যবহারকারীদের নির্ভেজাল আড্ডা ও অভিজ্ঞতার গল্প
# উবুন্টু ১৯.০৪ এর নতুন বৈশিষ্ট্যগুলো নিয়ে মিনিট দশেকের একটি চলমান চিত্র প্রদর্শনী
# কেক কেটে উবুন্টু’র নতুন প্রকাশনা উদযাপন

আপনাদের সবার স্বতঃস্ফুর্ত অংশগ্রহণ আশা করছি।

এই আয়োজনটি আপনার ক্যাম্পাস বা বিশ্ববিদ্যালয়ে এই আয়োজনটি করতে চাইলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন

উবুন্টু ১২.১০ “কোয়ানতাল কোয়েতযাল” এর প্রকাশনা উদযাপন

বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশেই উবুন্টু’র ব্যবহারকারীরা প্রতিটি সংস্করনের রিলিজ হবার পরপরই আনন্দ আয়োজনের মাধ্যমে উবুন্টু’র রিলিজটিকে স্বাগত জানিয়ে থাকেন। এ বছরে আনুষ্ঠানিকভাবে দিনটি পুরো বিশ্বব্যাপী পালনের সিদ্ধান্ত হয়েছিলো বিগত ৪ঠা মে, শুক্রবার। এই বছরে পুরো বিশ্বের উবুন্টু ব্যবহারকারীদের সাথে সাথে বাংলাদেশের সাধারন ব্যবহারকারীগণ ও উবুন্টুপ্রেমীদের সামগ্রিক অংশগ্রহনে এই দিনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি তে ”উবুন্টু ১২.০৪ রিলিজ পার্টি, বাংলাদেশ” আয়োজনটি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এটি সমন্বয় করেছেন আশিকুর রহমান নূর। সহকারী হিসেবে ছিলেন শরীফ আহমেদ মল্লিক এবং হাসান সাঈদ মুন্না। এছাড়াও আয়োজনে সব ধরনের সহযোগীতা দিয়েছে ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ।

বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যে সাড়ে ৬টা ব্যাপী এই আয়োজনে ষাটোধিক ব্যবহারকারীদের আড্ডা ছিলো জমজমাট। সবার সাথে সবার পরিচিতি, উবুন্টু ১২.০৪ এর নতুন যুক্ত হওয়া পরিসেবাগুলো নিয়ে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী আর জমজমাট আড্ডা চলে টানা বিকাল সাড়ে ৫টা ব্যাপী। বিকাল সাড়ে ৫টায় কেক কেটে উদযাপন করা হয় নতুন উবুন্টু সংস্করন ১২.০৪ এর মুক্তির আনন্দকে। সোয়া ছয়টায় ছোট্ট একটি অনাড়ম্বর আয়োজনের মাধ্যমে প্রথমবারের মতো “এফওএসএস বাংলাদেশ আইসিটি অ্যাওয়ার্ড” প্রদান করা হয়। এখন থেকে প্রতি দুই বছরে উবুন্টু’র প্রতিটি এলটিএস সংস্করনের রিলিজ পার্টিতে এই সম্মাননা পুরষ্কার দেয়া হবে বিভিন্ন ধরনের মুক্ত প্রযুক্তিতে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ। প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই পুরষ্কার দেয়া হয় তিনটি বিভাগে। “সেবার মানোন্নয়ন” বিভাগে বাংলালায়ন মডেম ডেবিয়ান ডিস্ট্রোতে কনফিগার করার জন্য পুরষ্কৃত হন অনিরুদ্ধ অধিকারী এবং মিনহাজুল হক শাওন। বাংলাদেশের উবুন্টু ব্যবহারকারীদের মধ্যে “মুরুব্বীজন” হিসেবে পুরষ্কৃত হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন অধ্যাপক খন্দকার আব্দুর রহিম এবং বিভিন্ন মুক্ত সফটওয়্যার প্রকল্পে “বাংলা অনুবাদের জন্য” অংকুর আইসিটি ফাউন্ডেশন কে দেয়া হয় এবারের সেরা অবদানকারীর খেতাব।

আয়োজনে সাধারন ব্যবহারকারী এবং আগ্রহীজনদের ল্যাপটপ/নেটবুক/নোটবুক এ উবুন্টু’র নতুন সংস্করনটি ইন্সটল এবং ব্যবহার সংক্রান্ত সেবা প্রদানের লক্ষ্যে ছিলো ”জিএনইউ/লিনাক্স ডিস্ট্রো ইন্সটলেশন এবং ব্যবহার সহযোগীতা সেবা” বুথ এবং একই সাথে জিএনইউ/লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভে কিংবা পছন্দের মিডিয়াতে সংগ্রহের ব্যবস্থা।

আয়োজনের ছবির সংকলন।