“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৯” — ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি

প্রযুক্তি জগতে বহুল আলোচিত বিষয়গুলোর মধ্যে একটি হল, “ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা”। অথচ সাধারণ ব্যবহারকারীদের মাঝে এই বিষয়ে কোনরূপ ধারণাই নেই।তারা তাদের ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষার জন্য ন্যূনতম মাথা খাটায় না।সাধারণ ব্যবহারকারীর সেই ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষার সাথে সাথে প্রযুক্তি জগতে তাদের চুড়ান্ত স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে রয়েছে Free Software।

কি এই ফ্রি সফটওয়্যার? মাগনা পাওয়া সফটওয়্যার নাকি অন্য কিছু?

এই বিষয়ের সাথে সাথে প্রযুক্তি জগতের আরো কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে এবং ফ্রি সফটওয়্যার ব্যবহারের পথ দেখাতে ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে আয়োজিত হয় এফওএসএস বাংলাদেশের নিয়মিত আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”।

তারিখ: ১৬ এপ্রিল, ২০১৯
সময়: দুপুর ১২ টা – দুপুর ২ টা
স্থান: রুম ১২৬, ইউআইইউ ক্যাম্পাস
ঠিকানা: ইউনাইটেড সিটি, মাদানী অ্যাভিনিউ, বাড্ডা, ঢাকা-১২১২।

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৫” – সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। “সফটওয়্যার চোর” অপবাদ থেকে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, লিনাক্স ও উন্মুক্ত সোর্স ভিত্তিক সফটওয়্যারকে ছড়িয়ে দেবার প্রত্যয়ে মুক্ত প্রযুক্তি ভিত্তিক সফটওয়্যার, লিনাক্স এবং বিভিন্ন সেবাসমূহ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে এফওএসএস বাংলাদেশ (ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ)।

উন্মুক্ত প্রযুক্তি ও মুক্ত সফটওয়্যার বিষয়ে এফওএসএস বাংলাদেশ এর জনসচেতনতামূলক একটি আয়োজন “পেঙ্গুইন মেলা”। সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি’র কম্পিউটার প্রকৌশল বিভাগ এবং এফওএসএস বাংলাদেশ এর যৌথ উদ্যোগে আসন্ন “পেঙ্গুইন মেলা” টি অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল, ৯ই ডিসেম্বর ২০১৫ইং, বুধবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা অবদি ঢাকার বনানীতে অবস্থিত সাউথ ইস্ট ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসের বিবিএ সেমিনার কক্ষে।

এই আয়োজনে থাকছে —
# সফটওয়্যার ও সফটওয়্যার পাইরেসি বিষয়ক আলোচনা
# সফটওয়্যার পাইরেসি থেকে মুক্ত হবার উপায় নিয়ে বিশদ আলোচনা
# মুক্ত সফটওয়্যার, ওপেনসোর্স ও জিএনইউ-লিনাক্স বিষয়ে আলোচনা
# অংশগ্রহনকারী দর্শকদের সাথে মতামত বিনিময় ও সরাসরি আলোচনা।
# আয়োজনের শেষাংশে জিএনউউ/লিনাক্স ডিস্ট্রো ইন্সটলেশন এবং ব্যবহার সহযোগীতার ব্যবস্থা। যেখানে জিএনইউ-লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভে সংগ্রহ ও ইন্সটল করে নেয়া যাবে।

 

আয়োজন পরবর্তী সংবাদ প্রতিবেদন (১০ই ডিসেম্বর ২০১৫ইং)

আয়োজনের ছবির সংকলন।

“পেঙ্গুইন মেলা – ২০১৩” — বরিশাল বিভাগ

মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন একটি সামাজিক আন্দোলন যার উদ্দেশ্য কম্পিউটার ব্যবহারকারীর অধিকার সংরক্ষণ করা। এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার আন্দোলন, মুক্ত সফটওয়্যার তৈরি করতে, ব্যবহার করতে এবং মানোন্নয়ন করতে উৎসাহ প্রদান করে। "সফটওয়্যার চোর" অপবাদ থেকে নিজের প্রানের প্রিয় এই বাংলাদেশকে কালিমামুক্ত করতে এবং সফটওয়্যার প্রযুক্তিতে স্বনির্ভর ও মুক্তপ্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মুক্ত সফটওয়্যার, [...]Read More

লিনাক্স মিন্ট ১৩ “মায়া”র প্রকাশনা উদযাপন

বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশেই “লিনাক্স মিন্ট” ব্যবহারকারীরা প্রতিটি সংস্করনের প্রকাশের পরপরই আনন্দ আয়োজনের মাধ্যমে উক্ত প্রকাশনাকে স্বাগত জানিয়ে থাকেন।

বিগত ৮ই জুন বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যে ৬টা ৩০মিনিট ব্যাপী এই আয়োজনে ছিলো বাংলাদেশের লিনাক্স মিন্ট ব্যবহারকারীদের সাথে উপস্থিত সকলের পরিচিতি, লিনাক্স মিন্ট ১৩ “মায়া” এর নতুন পরিসেবাগুলো নিয়ে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, জমজমাট আড্ডা আর আপ্যায়ন পর্ব। একই সাথে সাধারন ব্যবহারকারী এবং আগ্রহীজনদের ল্যাপটপ/নেটবুক/নোটবুক এ লিনাক্স মিন্ট ১৩ মায়া’র নতুন সংস্করনটি ইন্সটল এবং ব্যবহার সংক্রান্ত সেবা প্রদানের লক্ষ্যে থাকবে ”জিএনইউ/লিনাক্স ডিস্ট্রো ইন্সটলেশন এবং ব্যবহার সহযোগীতা সেবা” বুথ, জিএনইউ/লিনাক্স ভিত্তিক বিভিন্ন ডিস্ট্রোর আইএসও পেনড্রাইভে কিংবা পছন্দের মিডিয়াতে সংগ্রহের ব্যবস্থা।

অনলাইনে অনুষ্ঠানটির লাইভ স্ট্রিমিং থেকে উপভোগ করতে আয়োজন চলাকালীন সময়ে ustream.tv ওয়েবসাইট থেকে linuxmint-bdচ্যানেলটি টিউন করতে হয়েছে।

আয়োজনের ছবির সংকলন।